পুলিশ

শারদীয়ায় বড়সড় আইনী স্বস্তি অভিষেক পত্নীর,সশরীর হাজিরা নয়

শারদীয়ায় বড়সড় আইনী স্বস্তি অভিষেক পত্নীর, সশরীর হাজিরা নয়

সেখ জাহির আব্বাস,  

শারদীয়ায় বড়সড় আইনী স্বস্তি পেলেন তৃণমূল সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় পত্নী রুজিরা বন্দ্যোপাধ্যায়। আগামী মঙ্গলবার দিল্লির পাতিয়ালা হাউস কোর্টে সশরীর হাজিরা দিতে হবে না অভিষেক পত্নী কে।তাঁর আইনজীবী আদালতে হাজিরা দিতে পারবেন। সোমবার দিল্লি হাইকোর্টের তরফে এহেন নির্দেশে জারি করা হয়েছে ।কয়লা পাচার কাণ্ডে  বারবার তলব করা সত্ত্বেও জেরা এড়াচ্ছেন অভিষেক পত্নী। এমন অভিযোগ নিয়ে দিল্লির আদালতের দ্বারস্থ হয়েছিল ইডি । রুজিরা ইতিপূর্বে ইডিকে জানিয়েছিলেন, -“কোভিড পরিস্থিতি। বাড়িতে তাঁর দুই ছেলেমেয়ে রয়েছে। তাদের বয়স অনেকটাই কম। তাই এমন পরিস্থিতিতে সশরীরে হাজিরা সম্ভব নয়”। সমনের উপর স্থগিতাদেশ চেয়ে আদালতের দ্বারস্থও হন তিনি।রুজিরা-অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের আবেদনের পবিরুদ্ধে  পাতিয়ালা কোর্টে যায় এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেটও। তার পরই আদালত রুজিরাকে  তলব করেছিল বলে প্রকাশ । ৩০ সেপ্টেম্বর ভারচুয়ালি হাজিরাও দিয়েছিলেন তিনি।এদিন দিল্লি হাইকোর্টে রুজিরা বন্দ্যোপাধ্যায়ের আবেদনের শুনানি ছিল। যথারীতি তাঁর আবেদনের বিরোধিতা করেছিলেন ইডি-র তরফের আইনজীবী তথা সলিসিটার জেনারেল তুষার মেহতা। তবে তাঁর আপত্তি ধোপে টেকেনি। এই মামলার পরবর্তী শুনানি ২৯ নভেম্বর।কয়লাকাণ্ডে একাধিকবার তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক এবং তাঁর স্ত্রী রুজিরাকে সমন পাঠিয়েছে ইডি। সম্প্রতি ইডির দপ্তরে হাজিরা দিতে দিল্লিও উড়ে গিয়েছিলেন অভিষেক। টানা ৯ ঘণ্টা জিজ্ঞাসাবাদ করা হয় তাঁকে। তারপরও ফের সমন পাঠানো হয় অভিষেককে। এর আগে ব্যক্তিগত অসুবিধার কারণ তুলে ধরে কলকাতায় জিজ্ঞাসাবাদের আবেদন করা হয়েছিল। কিন্তু তাতে বিশেষ লাভ হয়নি।এরপর পাতিয়ালা হাউস কোর্টে সশরীর হাজিরার নির্দেশ দেয়। এর বিরুদ্ধে সোমবার দিল্লি হাইকোর্টের তরফে সশরীর হাজিরার বদলে আইনজীবীর উপস্থিতিতে বৈধতা দেওয়া হয়। 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *