প্রশাসন

আসানসোল পুরসভার তরফে বর্ণপরিচয় বিতরণ

বিদ্যাসাগরের ২০২ তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে শিশুদের বর্ন পরিচয় প্রদান

কাজল মিত্র :- বাংলা বর্ণমালা বর্ণপরিচয় রচয়িতা ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগরের ২০২ তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে রবিবার আসানসোলের ঊষাগ্রাম এলাকায় আসানসোল পৌর কর্পোরেশনের প্রশাসনিক বোর্ডের চেয়ারম্যান এর হাত দিয়ে শিশুদের মধ্যে বর্ণপরিচয়ের একটি করে বই বিতরণ করা হয়।এই উপলক্ষে আসানসোল পৌর কর্পোরেশনের প্রশাসনিক বোর্ডের চেয়ারম্যান বলেন যে আজ একবিংশ শতাব্দীতে আমরা নারীর ক্ষমতায়ন এবং নারী শিক্ষার কথা বলছি। কিন্তু ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগর শুধুমাত্র ১৯ শতকে নারীদের শিক্ষা প্রদানের প্রয়োজনীয়তার উপর জোর দিয়েছিলেন। ১৮৫০ সালে বিদ্যাসাগর বর্ণপরিচয় গ্রন্থ রচনা করেন।আজ,১৭০ বছর পরেও বাংলা ভাষায় শিক্ষিত হওয়ার প্রথম সিঁড়ি এই বর্ণপরিচয়।এমন কেউ নেই যে এই বর্ন পরিচয় ছাড়াই উচ্চ শিক্ষিত হয়েছে।তিনি বলেন আজ এই বিশেষ দিনটি ,বিদ্যাসাগরের জন্মদিনের পাশাপাশি আজকে মেদিনীপুরের আরেক মায়ের সন্তান মাতঙ্গিনী হাজরার মৃত্যুবার্ষিকী ।মেদিনীপুরের এই দুই সন্তান দেশকে অনেক কিছু দিয়েছে এবং আজ এটি শুধু বাংলার নয়,গোটা দেশের গর্ব।অমরনাথ চ্যাটার্জি বলেন, বিদ্যাসাগর যেভাবে মহিলাদের শিক্ষার পাশাপাশি বিধবা বিবাহের মতো কর্মসূচির মাধ্যমে নারীর ক্ষমতায়নের ওপর জোর দিতেন, একইভাবে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও মহিলাদের জন্য অনেক পরিকল্পনা নিয়ে এসেছেন যাতে নারীরা স্বাবলম্বী হয়।এ সময় প্রাক্তন কাউন্সিলর সুকুল হেমব্রম, তৃণমূল নেতা সিতু রুদ্র এবং অন্যান্যরা উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *