পুলিশ

আউশগ্রামের টেন্ডার বিবাদেই খুন, ধৃতদের স্বীকারোক্তি

আউশেগ্রামে টেন্ডার বিবাদেই খুন, ধৃতদের স্বীকারোক্তি 

পারিজাত মোল্লা,

;গত সপ্তাহে আউশগ্রামের দেবশালা এলাকার যুব নেতা চঞ্চল বক্সী চলন্ত মোটরবাইকে গুলিবিদ্ধ হয়ে খুন হয়েছিলেন। যার জেরে গোটা এলাকাজুড়ে পড়ে যায় চাঞ্চল্য। এরেই মধ্যে নিহতের পরিবারের কাছে এসেছিলেন রাজ্য তৃণমূল নেতা অনুব্রত মন্ডল। তিনি আশ্বাস দিয়েছিলেন এই খুনে দলের কেউ যুক্ত থাকলে তাকে রেহাত করা হবেনা। ঠিক এইরকম পরিস্থিতিতে গত রবিবার দলেরই ৩ জন গ্রেপ্তার হয়েছিলেন। পরে যাদের পুলিশি হেফাজতে রাখার নির্দেশ দেয় সদর বর্ধমান আদালতে এসিজেম এজলাস।পুলিশি হেফাজতে ধৃতরা খুনের ষড়যন্ত্র স্বীকার করে নিয়েছে বলে তদন্তকারীদের দাবি।তৃণমূল নেতা খুনের ঘটনায় গত রবিবার ৩ জনকে গ্রেফতার করেছে বিশেষ তদন্তকারী দল বা সিট। ধৃত আসানুল মণ্ডল ও মণির হোসেন মোল্লা আবার।আউশগ্রামের দেবশালা পঞ্চায়েতেরই তৃণমূল সদস্য। অন্যদিকে, আরেক ধৃত বিশ্বরূপ মণ্ডল, তৃণমূলেরই অঞ্চল সভাপতি হিমাংশু মণ্ডলের ছেলে। যিনি নিজেও এলাকায় তৃণমূল কর্মী বলে পরিচিত। পুলিশ সূত্রে খবর, জেরায় ধৃতরা জানিয়েছে, পঞ্চায়েতে বিভিন্ন কাজে টেন্ডার নিয়ে গন্ডগোল চলছিল। পঞ্চায়েত প্রধানের ছেলের মদতেই সব কাজ হত। তৃণমূল নেতা হিসেবে এলাকায় ক্রমেই জনপ্রিয়ও হয়ে উঠছিলেন চঞ্চল। পুলিশ সূত্রে অনুমান, সম্ভবত সেই আক্রোশেই খুনের ছক কষা হয়।এতে ঠিকেদারদের কোন ভূমিকা আছে কিনা, তাও খতিয়ে দেখুক পুলিশ। এখন দেখার আদালতে ধৃতরা পুলিশের কাছে দেওয়া স্বীকারোক্তি যথাযথ দেয় কিনা?

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *