প্রশাসন

বাঁকুড়া জেলা জাতীয় ক্রীড়া ও শক্তিসংঘের সভা

শুভদীপ ঋজু মন্ডল,

বাঁকুড়া জেলা জাতীয় ক্রীড়া ও শক্তি সংঘের দ্বি বার্ষিক সাধারণ সভা ও সুবর্ণ জয়ন্তী বর্ষ উদযাপন অনুষ্ঠান উপলক্ষে বিশেষ সভা অনুষ্ঠিত হলো আজ রবিবার বাঁকুড়া শহরের স্কুল ডাঙ্গায় নিজস্ব কার্যালয়ের হল ঘরে। সংঘ সভাপতি ডাঃঅমিতাভ চট্টরাজ বিশেষ কারণে উপস্থিত থাকতে না পারায় সংঘের কার্যকরী সভাপতি দীপক ঘোষ সভা পরিচালনা করেন। জেলার বিভিন্ন প্রান্ত থেকে 60 জনেরও বেশি সদস্য সদস্যা উপস্থিত হয়েছিলেন। দ্বিবার্ষিক সাধারণ সভার প্রতিবেদন পেশ করেন সম্পাদক রবীন মন্ডল। প্রতিবেদনের ওপর আলোচনা শেষে আগামী ২০২১ এর ১৯ শে নভেম্বর যে সুবর্ণজয়ন্তী বর্ষের অনুষ্ঠানের সূচনা হবে তা নিয়ে দীর্ঘ আলোচনা করেন কার্যকরী সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক, কোষাধ্যক্ষ সহ পরিচালন কমিটির সদস্য সদস্যা বৃন্দ। কার্যকরী সভাপতি দীপক ঘোষ বলেন আগামী দিনে আমাদের সংঘ পরিচালনার জন্য নুতন নুতন ছেলেমেয়েদের তৈরি করতে হবে এবং আমাদের সংঘের যে নিজস্ব খেলার মাঠ রয়েছে তার সদ্ব্যবহার করতে সেখানে স্থায়ী ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক ক্ষেত্র গড়ে তুলতে সকলের সহযোগিতা প্রয়োজন। সুবর্ণ জয়ন্তী বর্ষ উদযাপনের জন্য বিশেষ সভা অনুষ্ঠিত হবে আগামী ৩ রা অক্টোবর তবে সংঘ-সম্পাদক রবিন মন্ডল প্রস্তাব দেন 50 জন যুবককে নিয়ে একটি মশাল দৌড় সারা বাঁকুড়া শহর পরিক্রমা করবে এছাড়া জেলার চারটি প্রান্তে ফুটবল টুর্নামেন্টের আয়োজন করা হবে উল্লেখ্য আজকের সাধারণ সভায় সকলের সম্মতিক্রমে আগামী বছরের জন্য পুরানো পরিচালন কমিটি বহাল রইল।
উল্লেখ্য
১৯৭২ খ্রিস্টাব্দের ১৯ নভেম্বর, জাতীয় ক্রীড়া ও শক্তি সংঘের প্রতিষ্ঠা হয়, এক ভয়ংকর অস্থির তোলপাড় করা সময়ে। বাংলার ভাগ্যাকাশে তখন অন্ধকারের মধ্যে বাঁকুড়া শহরে ক্রীড়া ও সুস্থ সংস্কৃতি চর্চার আলো জ্বেলে দিতে সংকল্পবদ্ধ হন কয়েকজন স্বাধীনতা সংগ্রামী যেমন তারাপদ শিকদার, শিশির স্যানাল,উমা দেবী,সহ অধ্যাপক গেৈারীশংকর দে চণ্ডীচরণ দাস সহ বিশিষ্ট ব্যক্তিরা।দেখতে দেখতে সেই সংগঠন পঞ্চাশ বছর পূর্ণ করতে চলেছে।।করোনা কালে কোভিড বিধি মেনে এই সভায় সদস্যরা যোগদান করে সংঘের পঞ্চাশ বছর পূর্তি উপলক্ষ্যে বর্ষব্যাপী কর্মসূচি পালন করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেন।আগামী দিনে জেলাব্যাপী নানান ধরনের অনুষ্ঠান সংগঠিত করার জন্য একটি বিশেষ কমিটি করা হবে বলে জানান সংঘের কার্যকরী সভাপতি দীপক ঘোষ।সংঘের সম্পাদক রবীন মণ্ডল সমাজের সর্বস্তরের মানুষের অকৃপণ সাহায্য ও সহযোগিতা প্রার্থনা করেন।তিনি জানান ১৯নভেম্বর ২০২১ এই অনুষ্ঠানের সূচনা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *