রাজনীতি

শক্তিগড়ে নাবালিকা ধর্ষণ কান্ডে বিক্ষোভে বিজেপির মহিলা নেত্রী

সুরজ প্রসাদ

নাবালিকার উপর যৌন নির্যাতনের ঘটনায় অভিযুক্তকে গ্রেপ্তারের দাবীতে পূর্ব বর্ধমান জেলা পুলিশ সুপারের অফিসে গেলেন বিজেপির রাজ্য মহিলা মোর্চার সভানেত্রী অগ্নিমিত্র পল।বৃহস্পতিবার তিনি প্রথমে নির্যাতিতার বাড়ি যান।সেখানে নাবালিকার মা ও গোটা পরিবারের সঙ্গে কথা বলেন।ঘন্টা খানেক নির্যাতিতার বাড়িতে থাকার পর অগ্নিমিত্রা পল হাজির জেলা পুলিশ সুপারের অফিসে। সেখানে অবশ্য জেলা পুলিশ সুপার ভাস্কর মুখার্জী ছিলেন না। শেষ পর্যন্ত ডিএসপি হেডকোয়ার্টার শৌভিক পাত্রের সঙ্গে তিনি কথা বলেন গোটা বিষয়টি নিয়ে। ক্ষুদ্ধ অগ্নিমিত্রা পল বলেন যদি ৪৮ ঘন্টার মধ্যে অভিযুক্তকে পুলিশ গ্রেপ্তার না করে তাহলে তিনি আবার আসবেন।
এখানে উল্লেখ্য দিন পাঁচেক আগে পেয়ারার লোভ দেখিয়ে নাবালিকাকে যৌননির্যাতনের অভিযোগ ওঠে এক ব্যক্তির নামে। থানায় অভিযোগ দায়ের পর পাঁচদিন কেটে গেলেও এখনো পুলিশ অভিযুক্তে গ্রেপ্তার করতে পারে নি। অভিযুক্ত হরেকৃষ্ণ মণ্ডলের বাড়ি নাবালিকার বাড়ির পাশেই। এই চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটেছে পূর্ব বর্ধমানের
শক্তিগড় থানা এলাকায়।

বিজেপির অভিযোগ ঘটনার চার দিন কেটে গেলেও শাসক দলের কর্মী হওয়ায় অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করছে না শক্তিগড় থানার পুলিশ ।

ঘটনায় অভিযুক্ত হরেকৃষ্ণ মণ্ডলকে অবিলম্বে গ্রেপ্তারের দাবীতে বুধবারই শক্তিগড় থানায় যায় বিজেপির একটি প্রতিনিধি দল। আর এদিন আসেন বিজেপির মহিলা মোর্চার রাজ্য সভানেত্রী অগ্নিমিত্রা পল। তিনি বলেন তৃণমূল কংগ্রেস কর্মী সমর্থকদের চাল, ডাল চুরির করার পাশাপাশি এখন দেখছি বাংলার মা বোনের ধর্ষণ ও ইজ্জত নেওয়ারও ছাড়পত্র দিয়েছে শাসকদল।রাজ্যে একের পর এক এই রকম ঘটনা ধারাবাহিক ভাবে ঘটে যাচ্ছে। প্রশাসন কিছু করছে না। বাংলার মানুষ ভোটে তার জবাব দেবেন।কয়েকদিন আগে হুগলির তারকেশ্বরের এই একই রকম ঘটনা ঘটে। সেখানে এক তৃণমূল কংগ্রেসের নেতার ছেলে অভিযুক্ত।

ঘটনাটিতে রাজনৈতিক রঙ চাপাচ্ছে, অভিযুক্ত হরেকৃষ্ণ মণ্ডক তৃণমূল কংগ্রেসের কেউ নয়,আমরাও দোষীর শাস্তি চাই দাবী বর্ধমান উত্তরের তৃণমূল বিধায়ক নিশীথ মালিকের।তিনি বলেন কোভিডের সময় বিজেপি রাজনীতি করছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *