হাইকোর্ট সংবাদ

রুপশ্রী প্রকল্পে ৫ কোটি টাকার আর্থিক দুর্নীতি? রাজ্যের বক্তব্য চাইলো হাইকোর্ট

রুপশ্রীতে ৫ কোটির দুর্নীতি?  রাজ্যের বক্তব্য চাইলো হাইকোর্ট 

মোল্লা জসিমউদ্দিন টিপু,
মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের স্বপ্নের প্রকল্প রুপশ্রীতে ৫ কোটি টাকার আর্থিক দুর্নীতির অভিযোগে মামলা দাখিল হয়েছে কলকাতা হাইকোর্টে।যার শুনানি ছিল শুক্রবার কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি দেবাংশ বসাকের এজলাসে। এই বিপুল অংকের সরকারি অর্থের কারচুপি টি ঘটেছে বীরভূম জেলায়।তাও শুধুমাত্র একটি ব্লকে।নলহাটি ২ নং ব্লকের বিডিও এই আর্থিক নয়ছয়ে যুক্ত বলে অভিযোগ উঠেছে দাখিল করা পিটিশনে। যদিও বিষয় টি তদন্ত চলছে বলে জেলা প্রশাসন থেকে জানানো হয়েছে। বীরভূমের নলহাটি ২ নং ব্লকের ২০২০ – ২১ সালের আর্থিক বর্ষে ২০০০ জনের গড়ে ২৫ হাজার টাকা করে সর্বমোট ৫ কোটি টাকার আর্থিক দুর্নীতির অভিযোগ এই মামলাটিতে।রাজ্যের কোন ব্লকে এত বিপুল আর্থিক দুর্নীতির অভিযোগ নেই রুপশ্রী প্রকল্পে। শুক্রবার কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি দেবাংশ বসাক এই দুর্নীতির অভিযোগ নিয়ে রাজ্য কে এক মাসের মধ্যে লিখিত জবাব চেয়েছেন।মামলাকারীকে দু সপ্তাহের সময়সীমা বেঁধে দেওয়া হয়েছে আরও বক্তব্য পেশের জন্য। ২০১৮ সালে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় গরিব পরিবারের মেয়েদের বিবাহের খরচের জন্য ২৫ হাজার টাকার আর্থিক সাহায্য ঘোষণায় রুপশ্রী প্রকল্প চালু করে থাকেন।আবেদনের ভিক্তিতে কাগজপত্র জমা নিয়ে পঞ্চায়েত প্রধানের শংসাপত্র দেখে ব্লক প্রশাসনের তরফে একজন দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মী অনুসন্ধান চালিয়ে রিপোর্ট দেন।যার ভিক্তিতে ট্রেজারি থেকে  একাউন্টে টাকা জমা দেয় রাজ্য সরকার। তবে বীরভূমের নলহাটি ২ নং ব্লকে রুপশ্রী প্রকল্পের গ্রহিতাদের বেশিরভাগই বিবাহিতা এমনকি তারা অনেকেই সন্তানের মা।রুপশ্রী প্রকল্পের অনুসন্ধানকারী কর্মীও স্থায়ী কর্মী নন।এই বিপুল জনগণের টাকা নয়ছয় হয়েছে দেখে মাসুদ হোসেন নামে এক এলাকাবাসী ব্লক প্রশাসন ও জেলা প্রশাসন কে আরটিআই করে থাকেন।তবে তিনি সদুত্তর না পাওয়ায় কলকাতা হাইকোর্টের স্বনামধন্য আইনজীবী অমল বন্দ্যোপাধ্যায়ের মাধ্যমে কলকাতা হাইকোর্টে রিট পিটিশন দাখিল করেন।যার শুনানি হলো শুক্রবার দুপুরে কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি দেবাংশ বসাক এর এজলাসে। এহেন বিপুল আর্থিক দুর্নীতির অভিযোগ নিয়ে রাজ্য কে এক মাসের মধ্যে জবাব চেয়েছে আদালত। পাশাপাশি মামলাকারী কে আরও তথ্য প্রমাণ পেশ করার জন্য দু সপ্তাহের সময়সীমা বেঁধে দেওয়া হয়েছে বলে জানান মামলাকারীর আইনজীবী অমল বন্দ্যোপাধ্যায়। 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *