রাজনীতি

সোশ্যাল মিডিয়ায় জোর দিচ্ছে অনুব্রতের বীরভূম

খায়রুল আনাম


আগামী বিধানসভা নির্বাচনে বিভিন্ন রাজনৈতিক দল ইতিমধ্যেই  দলীয়স্তরে তথ্য প্রযুক্তি বিভাগ তৈরী করে প্রচার-ময়দানে নেমে পড়েছে। আর এক্ষেত্রে রাজ্যের বিরোধী দল হিসাবে ইতিমধ্যেই কাজ শুরু করে দিয়েছে বিজেপি। আর সেক্ষেত্রে শাসক তৃণমূল কংগ্রেস যে হাত গুটিয়ে বসে থাকবে না, তার ইঙ্গিত আগেই পাওয়া গিয়েছে। সেই পথ ধরেই এবার বীরভূম জেলা তৃণমূল কংগ্রেস আইটি সেল গঠন করে ময়দানে  নেমে পড়লো আনুষ্ঠানিকভাবে। করোনা আবহে বর্তমানে প্রকাশ্য জনসভা করা যাচ্ছে না। তাই, তথ্য প্রযুক্তি নির্ভর প্রচারের উপরে জোরও বাড়ছে।  বর্তমানে প্রায় সব বয়সের মানুষের হাতে মোবাইল থাকার ফলে, এই প্রচারে জোর এবং তার গ্রহণযোগ্যতা যেমন বাড়ছে তেমনি,  এই প্রচারের মাধ্যমে দ্রুত সব শ্রেণির মানুষের কাছে পৌঁছানোও  সম্ভব হচ্ছে।         এই কর্মসূচীতেই  রবিবার ১০ আগস্ট বোলপুরে বীরভূম জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের আইটি সেলের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করা হলো। উপস্থিত ছিলেন  বোলপুরের বিধায়ক তথা রাজ্যের মৎস্যমন্ত্রী চন্দ্রনাথ সিংহ, জেলা তৃণমূল কংগ্রেস সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল,  দলের জেলা সাধারণ সম্পাদক সুদীপ্ত ঘোষ প্রমুখ। এদিন এই আইটি সেলে যাঁরা  বিনা পারিশ্রমিকে কাজ করবেন, তাঁদের হাতে সচিত্র পরিচয়পত্র তুলে দেন মৎস্যমন্ত্রী চন্দ্রনাথ সিংহ। এদিন অনুব্রত মণ্ডল বলেন, রাজ্যে যে সব উন্নয়ন হচ্ছে তা তুলে না ধরে বিজেপি লাগাতার মিথ্যা প্রচার করে যাচ্ছে। প্রতিশ্রুতি দিয়েও তারা ২০১৪ সাল থেকে কোনও চাকরি দেয়নি। আবার সিপিএমও অনেক চাকরি মামলা করে আটকে রেখেছে। বিজেপি তাদের আইটি সেলকে কাজে লাগিয়ে ইতিমধ্যেই প্রচার করতে শুরু করে দিয়েছে যে, রাজ্যে তৃণমূল কংগ্রেস হেরে যাচ্ছে। কিন্তু মানুষ জানেন, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় রাজ্যে কী ধরনের উন্নয়ন মূলক কাজ করছেন। বহু চাকরি দিয়েছেন। তিনি হারলে তো এইসব উন্নয়ন মূলক কাজ বন্ধ হয়ে যাবে। তাতে কী পশ্চিমবঙ্গের ভালো হবে-সেই প্রশ্নও এদিন তোলেন অনুব্রত মণ্ডল।।   

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *