পুলিশ

নিশিরাতে করোনার ডিউটিতে মঙ্গলকোটে গ্রেপ্তার মাদক কারবারি

নিশিরাতে করোনার ডিউটিতে মঙ্গলকোটে গ্রেপ্তার মাদক কারবারি 

পারিজাত মোল্লা, আমিরুল ইসলাম,

; মারণ ভাইরাস করোনার বাড়বাড়ন্ত রুখতে রাতজুড়ে চলছে পুলিশের ননস্টপ ডিউটি। অযথা কেউ বাড়ির বাইরে কিনা, মুখে মাস্ক পড়েছে কিনা? এইসব দেখতে গিয়ে হাতেনাতে গ্রেপ্তার হলো এক মাদক কারবারি। সোমবার ভোররাতে মঙ্গলকোটের নুতনহাট সংলগ্ন অজয় নদের লোচনদাস সেতুতে মঙ্গলকোট থানার পুলিশের করোনা স্বাস্থ্যবিধি কড়া ভাবে বজায় রাখার ডিউটি চলছিল সাব ইন্সপেক্টর সঞ্জয় ওরাং এর নেতৃত্বে। তখনই মোটরসাইকেল করে আসা কেতুগ্রামের ইন্তাজ সেখ কে ধরলো মঙ্গলকোট থানার পুলিশ। মঙ্গলকোটের লোচনদাস  সেতুতে পুলিশ নাকা চেকিং করতে গিয়ে হাতেনাতে পাকরাও   এক মাদক কারবারি।পূর্ব বর্ধমান জেলা পুলিশের নির্দেশে মঙ্গলকোট থানার পুলিশ প্রতিদিনই মঙ্গলকোটের লোচন দাস সেতুতে নাকা চেকিং চালাচ্ছে।ইতিমধ্যে বিধানসভা ভোটের আগের নাকা চেকিং করতে গিয়ে এই লোচন দাস সেতুতে ১১ লক্ষ টাকা উদ্ধার করেছিল মঙ্গলকোট থানার পুলিশ।এদিন ভোররাতে  মঙ্গলকোটের লোচন দাস সেতুতে নাকা চেকিং চালাচ্ছিলেন মঙ্গলকোট থানার সাব ইন্সপেক্টর  সঞ্জয় ওরাং, সঙ্গে ছিল আরও তিন কনস্টেবল।বীরভূম থেকে একটি মোটরসাইকেল আরোহী নতুনহাটের দিকে আসছিল। তাকে দাঁড় করাতে বললে তার  সন্দেহজনক আচরণ দেখা যায়। তার কাছ থেকে তরল দু লিটার কডিন উদ্ধার করে পুলিশ। ধৃত ব্যক্তির নাম ইন্তাজ শেখ ওরফে মিঠুন সেখ, তার বাড়ি কেতুগ্রাম থানার ভাল্লপাড়ায়।সোমবার দুপুরে  বর্ধমান আদালতে মাদক সংক্রান্ত এজলাসে ধৃত কে পেশ করা হয়  ।এই মাদক মামলায় তদন্তকারী পুলিশ অফিসার প্রনব নন্দী জানিয়েছেন – ” আমরা ধৃত কে পুলিশি হেফাজতে নিয়ে এই কারবারে কারা যুক্ত তাদেরকেও গ্রেপ্তার করতে চায়”। 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *