পুলিশ

নেতা খুন পরবর্তী মঙ্গলকোট পুলিশের বিশেষ অপরাধ দমন শাখা

নেতা খুন পরবর্তী মঙ্গলকোট পুলিশের বিশেষ অপরাধ দমন শাখা 

মোল্লা জসিমউদ্দিন টিপু,


গত জুলাই মাসের দ্বিতীয় সপ্তাহে গুলিবিদ্ধ হয়ে খুন হন মঙ্গলকোটের লাখুড়িয়া অঞ্চল তৃণমূল সভাপতি অসীম দাস। হাইপ্রোফাইল  এই খুনের দুদিনের মাথায় জেলা পুলিশের অতিরিক্ত জেলা পুলিশ সুপারের নেতৃত্বে স্পেশাল ইনভেস্টিগেশন টিম অর্থাৎ সিট গঠন করা হয়েছিল। পরে অবশ্য এই খুনের তদন্তভার দেওয়া হয় রাজ্য গোয়েন্দা সংস্থা সিআইডির উপর।মামলার প্রথম পর্বে ধৃতদের জেরা করে স্থানীয় থানার পুলিশ মঙ্গলকোটের বিভিন্ন অপরাধমূলক কর্মকাণ্ডের সূত্র পায়।সেই সূত্র থেকেই মঙ্গলকোট থানার আইসি পিন্টু মুখার্জি বিশেষ অপরাধ দমন শাখা বিভাগ চালু করে থাকেন।সাধারণত আমরা এটি কে পুলিশের পিসি পার্টি হিসাবে জানি।যা জেলার কিংবা মহকুমা সদর থানায় থাকে।মফস্বল থানায় নেই বললেই চলে। পূর্ব বর্ধমান জেলায় এহেন উদ্যোগ অন্যান্য থানা গুলিতে সেভাবে দেখা মিলেনি।দক্ষ সাব ইনস্পেকটর উত্তম সরকারের নেতৃত্বে একজন এএসআই সহ গোটা দশেক পুলিশ কর্মী রয়েছেন এই বিশেষ অপরাধ দমন শাখায়।গত ১৭ জুলাই মঙ্গলকোট পুলিশের এই পিসি পার্টির সক্রিয়তা শুরু হয়েছে। মাত্র দু সপ্তাহের মধ্যেই চারজন কে ডাকাত সন্দেহে গ্রেপ্তার, কাটোয়ার এক বিরিয়ানির দোকান মালিকের বহুমূল্যের মোবাইল ফোন উদ্ধার সহ নেশাকারীদের গ্রেপ্তার সর্বপরি মাস্কহীন ব্যক্তিদের ব্যাপক ধরপাকড় চালাচ্ছেন এই বিশেষ অপরাধ দমন শাখা বিভাগের অফিসার এসআই উত্তম সরকার ।রাতের দিকে রাজ্য সড়ক সহ বিভিন্ন সড়কপথে মোটরসাইকেল করে টহল দিচ্ছেন এঁরা। তবে দুস্কৃতিদের প্রকোপ যে একদম কমে গেছে তাও নয়।শনিবার ভোররাতে নুতনহাট সংলগ্ন পদিমপুর বাইপাসে দুটি বাণিজ্যিক মার্কেটে তিনজনের এক চোরের দল ‘এপাচি’ মোটরসাইকেল করে এসে চুরির চেষ্টা চালায়।ঘরের সামনে লাইট গুলি খুলে নেয় তারা।এরপর দোকানগুলির তালা ভাঙ্গার চেস্টা করে থাকে। তবে বৃস্টিময় ভোররাতে আশেপাশে পুকুরে কয়েকজন এলাকাবাসী মাছ ধরায় চোরেরা অবস্থা বেগতিক দেখে পালিয়ে যায়।মঙ্গলকোট থানার পুলিশের এই বিশেষ অপরাধ দমন শাখা বিভাগের অফিসাররা ঘটনাস্থলে এসে সমস্ত তথ্য নিয়েছেন, পাশাপাশি নুতনহাট পীড়তলা, লোচনদাস সেতু, হাইস্কুল মোড়ে রাত দুটো নাগাদ সিসিটিভি ক্যামেরার ফুটেজ গুলি সংগ্রহ করার চেস্টা রাখছেন তাঁরা। এখন দেখার অপরাধ দমনে কতটা সাফল্য পায় মঙ্গলকোট থানার পুলিশের এই বিশেষ বিভাগ?

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *