হাইকোর্ট সংবাদ

‘জোর করে বেতন কেটে নেওয়াটা বেআইনী’

‘জোর করে বেতন কেটে মুখ্যমন্ত্রীর তহবিলে দান বেআইনী’

মোল্লা জসিমউদ্দিন টিপু,

,
জোর করে কোন কর্মীর বেতন কেটে মুখ্যমন্ত্রীর তহবিলে দান তা আইনগত বৈধ নয়। ঠিক এইরকম নির্দেশ দিয়ে জানালো কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি অমৃতা সিনহার বেঞ্চ।বৃহস্পতিবার বিশ্বভারতীর এক অধ্যাপক সুদীপ্ত ভট্টাচার্যের দাখিল করা মামলায় এইরকম নির্দেশ কলকাতা হাইকোর্টের। ‘জোর করে বেতন কেটে মুখ্যমন্ত্রীর তহবিলে দান বেআইনী । বেতনভোগীর সম্মতি ছাড়া একতরফাভাবে মুখ্যমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে দান করা বেআইনী’।  এর পাশাপাশি আদালত এও জানিয়েছে – ‘ জোর করে কর্তৃপক্ষ বেতন কেটে নিতে পারেনা।একদিনের বেতন কেটে নেওয়াটাও বে আইনী’। উল্লেখ,  ২০২০ সালে মে মাসে বিশ্বভারতী কর্তৃপক্ষ আমফানে ক্ষতিগ্রস্তদের দানের জন্য সমস্ত কর্মীদের একদিনের বেতন কেটে মুখ্যমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে জমা দেয় অনুদান হিসাবে।কলকাতা হাইকোর্টের বর্ষীয়ান আইনজীবী বিকাশরঞ্জন ভট্টাচার্য এর হাত ধরে মামলা দাখিল করেন বিশ্বভারতীর অধ্যাপক সুদীপ্ত ভট্টাচার্য।তার দাবি – ‘ সম্মতি ছাড়া জোর করে বেতন কেটে নেওয়াটাও বেআইনী।তাছাড়া এটি অনুদান হতে পারে না’।  আদালত পরিস্কারভাবে জানিয়ে দেয় – ‘জোর করে বেতন কেটে নেওয়াটাও অনুদান হতে পারেনা।এবং তা বে আইনী সংশ্লিষ্ট বেতনভোগীর অনুমতি ছাড়া’।  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *