রাজনীতি

সিপিএমের জেলা সম্পাদক বীরভূম তৃণমূলে

সিপিএমের জেলা সম্পাদকের ছেলে তৃণমূল কংগ্রেসে


         খায়রুল  আনাম,
রাজনৈতিক দিক থেকে চরম বিপর্যয় এবং অস্বস্তিকর অবস্থার মধ্যে পড়লো  সিপিএমের বীরভূম জেলা কমিটি। একের পর এক ভোট বিপর্যয়ে এমনিতেই নাস্তানাবুদ অবস্থার মধ্যে রয়েছে সিপিএম। বিগত বিধানসভা নির্বাচনে জেলা তো বটেই, রাজ্য বিধানসভাতেই শূন্যে পৌঁছে গিয়েছে সিপিএম তথা বামেরা। তারপর থেকেই রাজ্যের অন্যান্য জায়গার সাথে সাথে বীরভূম জেলাতেও বহু সিপিএম নেতা কর্মী দলত্যাগ করে তৃণমূল কংগ্রেসে যোগ  দিয়েছেন।    এরই মধ্যে  শুক্রবার ১৬ জুলাই বোলপুরে তৃণমূল কংগ্রেস কার্যালয়ে সদলবলে এসে সিপিএম নেতা তথা সিপিএমের বীরভূম জেলা সম্পাদক মনসা হাঁসদার ছেলে, পেশায়  শিক্ষক  বুদ্ধদেব হাঁসদা সরাসরি তৃণমূল কংগ্রেসে যোগ দিলেন। তাঁর হাতে তৃণমূল কংগ্রেসের দলীয় পতাকা তুলে দেন তৃণমূল কংগ্রেসের বীরভূম জেলা সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল। বুদ্ধদেব হাঁসদার হাতে দলীয় পতাকা তুলে  দিয়ে অনুব্রত মণ্ডল বলেন, বুদ্ধদেব হাঁসদা অত্যন্ত ঠাণ্ডা মাথার বিচক্ষণ ছেলে। আমরা তাকে কেবলমাত্র দলে নিয়েই বসে থাকবো না। তাঁকে দলের জেলাস্তরের নেতা হিসেবে স্বীকৃতি দেব। পরবর্তী জেলা কমিটির বৈঠকেই এ ব্যাপারে পদক্ষেপ নেওয়া হবে। তৃণমূল কংগ্রেসে যোগ দিয়ে বুদ্ধদেব হাঁসদা বলেন, সিপিএম আর আগের  মতো জন সংযোগমূলক কাজ করতে পারছে না, মানুষের আশা-আকাঙ্ক্ষাও পূরণ  করতে পারছে না। এই মুহূর্তে তৃণমূল কংগ্রেস অনেক উন্নয়নমূলক এবং গঠনমূলক কাজ করায়, তাদের সঙ্গে থেকে এখন মানুষের হয়ে কাজ করতে চাইছি। এ ব্যাপারে তাঁর বাবা সিপিএমের জেলা সম্পাদক মনসা হাঁসদার সাথে কোনও কথা হয়েছে কী না, সে প্রশ্ন অবশ্য তিনি সন্তর্পণে এড়িয়ে গিয়েছেন।  অনুব্রত মণ্ডলও মনসা হাঁসদার প্রশংসা করে বলেন, মনসা হাঁসদাও খুব ঠাণ্ডা মাথার মানুষ। কখনও কারও সঙ্গে কোনও ঝামেলার মধ্যে যাননি।  সিপিএমের বর্তমান বীরভূম জেলা সম্পাদক মনসা হাঁসদা বাম জামানায় বোলপুর- শ্রীনিকেতন পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি এবং বীরভূম জেলা পরিষদের সভাধিপতিও ছিলেন। বুদ্ধদেব হাঁসদা  সদলবলে তৃণমূল কংগ্রেসে  যোগ দেওয়ার পরিপ্রেক্ষিতে এখন জোর জল্পনা শুরু হয়ে গেল যে, জেলায় বামেদের এই ভাঙ্গন আর কতোটা দীর্ঘ হবে ?    

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *