হাইকোর্ট সংবাদ

নন্দীগ্রাম মামলায় সমস্ত নথি সংরক্ষণ করার নির্দেশ হাইকোর্টের

নন্দীগ্রাম মামলায় সমস্ত নথি সংরক্ষণের নির্দেশ হাইকোর্টের 

মোল্লা জসিমউদ্দিন ,


বুধবার দুপুরে কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি শম্পা সরকারের এজলাসে উঠে নন্দীগ্রাম বিধানসভার পুন গননা চেয়ে মামলা। এদিন বিচারপতি সর্বপ্রথম মামলাকারী মুখ্যমন্ত্রীর পিটিশন টি খতিয়ে দেখেন। আবেদনকারীর আবেদন যথাযথভাবে হয়েছে কিনা, তা দেখা হয়।কেননা নির্বাচনীর ফলাফল প্রকাশের ৪৫ দিনের মধ্যে মামলা দাখিল করতে হয় ভোটপ্রার্থী কে।আজ বিচারপতি শম্পা সরকার এই মামলায় নিস্পত্তি না ঘটা পর্যন্ত সমস্ত নথি সংরক্ষণ করার নির্দেশ দেন নির্বাচন কমিশনের সিইও কে।ভোট সংক্রান্ত সমস্ত নথি সংরক্ষণ করে রাখতে হবে। পূর্ব মেদিনীপুর জেলার নন্দীগ্রাম বিধানসভার কেন্দ্রে ভোট গণনার দিন ভিডিওগ্রাফি, ইভিএম, ভিভিপ্যাট সবকিছুই সংরক্ষণের আওতায় থাকবে এই মামলার চুড়ান্ত নির্দেশিকা জারি না হওয়া অবধি।এদিন কলকাতা হাইকোর্টের তরফে মামলাকারী মুখ্যমন্ত্রী, বিজেপি প্রার্থী শুভেন্দু অধিকারী, নির্বাচন কমিশন এবং নন্দীগ্রাম বিধানসভার রিটানিং অফিসার কে নোটিশ পাঠানো হয়েছে। আগামী ১২ আগস্ট এই মামলার পরবর্তী শুনানি রয়েছে বলে জানা গেছে। ফলাফল প্রকাশের দিনঅর্থাৎ গত ২ মে দেখা যায় নির্বাচন কমিশন প্রথম পর্বে তৃণমূল প্রার্থী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ১২০০ ভোটে জিতেছেন বলে ঘোষণা করা হয়। ওইদিন একটু রাতে আবার নির্বাচন কমিশন বিজেপি প্রার্থী শুভেন্দু অধিকারীর ১৯০০ এর বেশি ভোটে জয়লাভ ঘোষণা করে থাকে। আর এই নিয়েই শুরু হয় তর্কবিতর্ক। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নন্দীগ্রাম বিধানসভা নির্বাচনের ভোটে  পুনরায় গননা চেয়ে মামলা দাখিল করেন। তবে এই মামলার বিচারপর্বে প্রথমে থাকা বিচারপতি কৌশিক চন্দ কে ঘিরে প্রবল আপত্তি দেখা যায় তৃণমূল শিবিরে।তৃণমূল লিগ্যাল সেলের তরফে হাইকোর্টের সামনে কালো মাস্ক পড়ে বিক্ষোভ, বিভিন্ন নেতার বিচারপতির আইনজীবী পেশায় থাকার সময় বিজেপি নেতাদের সাথে ছবি পোস্ট করতে দেখা যায়।এমনকি বিচারপতির স্থায়ীত্ব নিয়ে বিরোধিতা করতে দেখা যায়। ঠিক এইরকম পরিস্থিতিতে বিচারব্যবস্থা কে কলুষিত করার জন্য ৫ লক্ষ টাকা আর্থিক জরিমানা আদায় করার নির্দেশ দিয়ে গত ১২ জুলাই এই মামলা থেকে অব্যাহতি নেন বিচারপতি কৌশিক চন্দ। আজ অর্থাৎ বুধবার দুপুরে কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি শম্পা সরকারের এজলাসে উঠে নন্দীগ্রাম মামলাটি।সেখানে সব পক্ষদের কে নোটিশ পাঠিয়ে এই বিধানসভার সমস্ত ভোট সংক্রান্ত নথি সংরক্ষণ করার নির্দেশ দেন বিচারপতি। আগামী ১২ আগস্ট এই মামলার পরবর্তী শুনানি রয়েছে। 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *