প্রশাসন

কেন্দ্রের কন্ঠরোধে সরব অমর্ত্য সেন

কেন্দ্রের কন্ঠরোধে সরব অমর্ত্য সেন
মোল্লা জসিমউদ্দিন
কেন্দ্রের ভূমিকায় ফের সরব নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদ অমর্ত্য সেন। তিনি এক ইংরেজি সংবাদমাধ্যমে সাক্ষাৎকারে জানিয়েছেন – ‘ ভারতে পাবলিক ডিসকাশন তথা আলাপ আলোচনার বিষয়টি আস্তে আস্তে তুলে দেওয়া হচ্ছে। যা কোভিড পরিস্থিতিতে গরিব মানুষ কে আরও ভয়ংকর পরিস্থিতির সম্মুখীন করছে।একমাত্র আলোচনা সমালোচনায় গরিব মানুষ কে এই পরিস্থিতি থেকে টেনে তুলতে পারে’। বাঙালি নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদ এই প্রসঙ্গে ১৯৪৩ সালের দুর্ভিক্ষের উদাহরণ টেনেছেন। তিনি বলেন – ‘ ওই দুর্ভিক্ষের জন্য সরাসরি  ৫ থেকে ১০% মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত হলেও পরবর্তীতে সিংহভাগ মানুষ চরম সংকটে পড়েছে। তখন খাদ্য সংকট বিষয়টি শাসক বৃটিশ আমজনতার কাছে পৌঁছাতে চায়নি।কেউ তুলে ধরলে দমনপীড়ন চলতো।এখন যেটা কেন্দ্রীয় সরকার চালাচ্ছে করোনার বর্তমান পরিস্থিতি দেশবাসীকে না জানাতে।’ ওয়াকিবহাল মহল মনে করছে – যেভাবে বিজেপি শাসিত রাজ্যে বিশেষত উত্তরপ্রদেশে জাতীয় সংবাদমাধ্যম গুলির উপর কন্ঠরোধ চলছে।সেই বিষয়েই সরব হয়েছেন বাঙালি এই নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদ অমর্ত্য সেন। 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *