রাজনীতি

আদালতে রাজ্য সরকার ‘থাপ্পড়’ খেয়েছে বলে সিউড়িতে দাবি দিলীপ ঘোষের

খায়রুল আনাম,

 আদালতে রাজ্য সরকার’থাপ্পড়’ খেয়েছে বলে দাবি করলেন দিলীপ ঘোষ
       
রাজ্য বিধানসভা নির্বাচনে তাঁরা আসন সংখ্যা প্রাপ্তির হিসাবে পিছিয়ে থাকলেও, ভোট প্রাপ্তির হিসাবে এগিয়ে  গিয়েছেন এবং এমন অনেক বিধানসভা আসন রয়েছে, যেখানে তাঁরা পরাজিত হলেও, এক লক্ষের বেশি ভোট পেয়েছেন। এটাকে তাঁরা তাঁদের জয় বলেই মনে করছেন বলে দাবি করলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি  দিলীপ ঘোষ।  রাজ্য বিধানসভা ভোট পরবর্তী সময়ে সোমবার ২১ জুন বীরভূমের সিউড়িতে  দলীয় কার্যালয়ে বিশেষ সাংগঠনিক বৈঠকে যোগ  দিতে এসে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে এমনই মত ব্যক্ত করলেন দিলীপ ঘোষ। এদিন তাঁকে পুষ্পস্তবক দিয়ে সম্বর্ধিত করেন দলের জেলা সভাপতি ধ্রুব সাহা। এবারের বিধানসভা নির্বাচনে জেলার ১১ টি আসনের মধ্যে  দুবরাজপুর আসনে বিজেপি প্রার্থী অনুপ কুমার সাহা জয়ী হওয়ায় তাঁকে সম্বর্ধিত করেন দিলীপ ঘোষ।    এদিন দিলীপ ঘোষ তাঁর স্বভাবসিদ্ধ ভঙ্গীতে মুকুল রায় সম্পর্কে বলতে গিয়ে বলেন, বিজেপির টিকিটে জিতে উনি তৃণমূল কংগ্রেসে চলে গিয়েছেন।  আমরা রাহুমুক্ত হয়েছি। যাঁদের পোষায়নি তাঁরা চলে গিয়েছেন। এতে আমাদের  কিছু যায়-আসে না।  তিনি রাজ্যের তৃণমূল কংগ্রেসকে তীব্র ভাষায় আক্রমণ করে বলেন,  রাজ্যের গরীব আদিবাসী, উপজাতি মানুষদের ভোট নিয়েও তাঁদের প্রতিশ্রুতি মতো মাসে ৫০০ টাকা করে  দিচ্ছেন না।  ভোটের পর ৩১ মে থেকে ১০ জুন পর্যন্ত  তাঁদের দলীয় কর্মী, কার্যকর্তারা ঘরে  ফিরতে   পারছেন না। এমন ৩ হাজার ২৪৩ টি ঘটনার তালিকা দিয়ে আমরা জানিয়ে দিয়েছি, রাজ্যে কী ধরনের সন্ত্রাস চলছে।  কলকাতা হাইকোর্ট  রাজ্য  প্রশাসনকে  ঘর ছাড়াদের  ঘরে ফিরিয়ে দেওয়ার নির্দেশ দিয়ে, রাজ্য সরকারকেই ‘থাপ্পড়’ মেরেছে। এরা আরও থাপ্পড় খাবে।  সিঙ্গুর মামলার রায় কী ভাবে সেটিং করে আদায় করেছিলো, তা আমরা জানি।  কেন্দ্রীয় সরকার রাজ্য সরকারকে প্রয়োজনীয় করোনা ভ্যাকসিন  দিচ্ছে না বলে যে অভিযোগ রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী করছেন, সে সম্পর্কে বলতে গিয়ে  দিলীপ ঘোষ বলেন, রাজ্যকে ১০ লক্ষ ভ্যাকসিন দেওয়া হলে ৬০ থেকে ৭০ হাজারের বেশি ভ্যাকসিন সাধারণ মানুষকে দেওয়া হচ্ছে না। এটা কারও ‘বাপের জিনিষ নাকি ?’  বাকী ভ্যাকসিন কারা পাচ্ছেন, তার হিসাব কেন দেওয়া হচ্ছে না ?  সেই প্রশ্নও এদিন তোলেন দিলীপ ঘোষ।। 
 ছবি : সিউড়িতে দিলীপ ঘোষ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *