হাইকোর্ট সংবাদ

ডাক্তার ও স্বাস্থ্যকর্মীদের হেনস্তা করলে হতে পারে ৫ বছরের জেল

ডাক্তার ও স্বাস্থ্যকর্মীদের হেনস্তা করলে হতে পারে ৫ বছরের জেল,

মোল্লা জসিমউদ্দিন টিপু,


মারণ ভাইরাস করোনা আবহে দেড়বছরের বেশি সময়কালে জীবন কে ঝুঁকি নিয়ে ডিউটি করে চলেছেন চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীরা।অনেকে আবার অন্যের  প্রাণ বাঁচিয়েও নিজেই মারা গেছেন করোনার গ্রাসে। তবুও শারীরিক হেনস্তার ক্রমাগত শিকার হচ্ছেন প্রথম সারির এই কোভিড যোদ্ধারা।তাই কেন্দ্রীয় সরকার এবার কড়া পদক্ষেপ নিলো এইসব কোভিড যোদ্ধাদের শারীরিক হেনস্তা রুখতে। কেন্দ্রীয় সরকারের স্বরাষ্ট্র সচিব অজয় ভাল্লা দেশের সমস্ত রাজ্যসরকার  ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল গুলির প্রশাসন কে চিঠি দিয়ে হেনস্থাকারীদের বিরুদ্ধে এফআইআর  দাখিল করার নির্দেশ দিলো।পাশাপাশি এইসব অভিযোগগুলি তদন্তে অগ্রাধিকার দেওয়ার কথা জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের সচিব অজয় ভাল্লা।২০২০ সালে মহামারী আইন  ( সংশোধিত)  আইনে এই অভিযোগ দায়ের করার কথা বলা হয়েছে। কি আছে এই মহামারী আইনের শাস্তি হিসেবে ? সংবিধান বিশেষজ্ঞ আইনজীবী বৈদূর্য ঘোষাল জানান – ‘ এই আইনে সর্বোচ্চ ৫ বছর জেল এবং ৫ লাখ টাকার আর্থিক জরিমানার নির্দেশিকা রয়েছে ‘। ওয়াকিবহাল মহল মনে করছে – এই আইনে এফআইআর দায়ের শুরু হলে ডাক্তার ও স্বাস্থ্যকর্মীদের প্রতি হেনস্তার ঘটনা কমবে। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র সচিব রাজ্য প্রশাসন কে পাঠানো চিঠিতে লিখেছেন – ‘ চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মী হেনস্তায় নেতিবাচক প্রভাব পড়ছে স্বাস্থ্য পরিষেবায়। হুমকি দেওয়া এবং হামলার ঘটনা তাদের মনোবল ভেঙে দিতে পারে’।পাশাপাশি চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মী হেনস্তাকে উৎসাহ দিতে সোশাল মিডিয়ায় পোস্টের উপর নজরদারি চালাবার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের তরফে।যেভাবে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে মারণ ভাইরাস করোনা আবহে চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মী রা হেনস্তার শিকার হচ্ছেন। তাতে স্বাস্থ্যমহলে অন্দরে বাড়ছে ক্ষোভ। সেখানে দেশে চিকিৎসায় প্রভাব পড়ছে।তাই দেরিতে হলেও হেনস্তাকারীদের বিরুদ্ধে  এফআইআর  দাখিলের নির্দেশিকা স্বাস্থ্য পরিষেবায় বিঘ্নকারীদের হুশিয়ারি দিল বলে মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল। 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *