প্রশাসন

খোলা আকাশের নীচে সবুজসাথীর ১২০০ সাইকেল

আছড়া স্কুলের বাইরে রোদে জলে নষ্ট হচ্ছে 1200 সবুজ সাথীর সাইকেল

কাজল মিত্র,

:- সালানপুর ব্লকের আছড়া পঞ্চায়েতের আছড়া যোগ্গেশ্বর ইনস্টিটিউট ( উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়)এর খােলা আকাশের নীচে রােদে জলে পড়ে পড়ে নষ্ট হচ্ছে সবুজ সাথীর ১২০০সাইকেল।
জানা যায় যে প্রায় পাঁচ মাস ধরে সাইকেল গুলি একই অবস্থায় পড়ে রয়েছে স্কুলে ।খােলা আকাশের নিচে সাইকেলগুলি রাখা আছে।ফেব্রুয়ারি মাসে প্রথম দিকে সাইকেল গুলি দেওয়ার কথা থাকলেও ভোট আর করোনার বাড়বাড়ন্ত দেখে সেগুলি ছাত্রদের আর দেওয়া হলনা ।তবে সাইকেল গুলি দেওয়া নাহলেও সেগুলি সুরক্ষিত স্থানে রাখার কোন বন্দবস্তই করা হয়নি যার কারনে 1200 সাইকেল রোদে
ও বৃষ্টিতে পরে রয়েছে।সেগুলির উপরে কোন আচ্ছাদনের ব্যবস্থা করা হয়নি ।প্রায় পাঁচ মাস এইভাবে ফাঁকায় সাইকেলগুলি পড়ে থাকার ফলে নিঃসন্দেহে সেগুলি অনেকটাই অকেজো হয়ে গেছে । কিন্তু কেন এগুলি পড়ুয়াদের হাতে তুলে দেওয়া হলাে বা কেন এগুলাের উপরে কোন আচ্ছাদন দেওয়া হলাে না অথবা সাইকেলগুলিকে কোন বড় হলঘরে বা ক্লাস রুমের ভেতরে ঢুকিয়ে রাখা হলাে না সেই প্রশ্নে স্কুলের প্রধান শিক্ষক নিখিল দত্ত বলেন ব্লক প্রসাশনের নির্দেশে
সালানপুর ব্লকের সমস্ত স্কুলের সাইকেল গুলি আমাদের আছড়া স্কুলে রাখা হয়েছে ।সবুজ সাথীর
সাইকেল গুলি নবম শ্রেণীর পড়ুয়াদের দেওয়ার জন্য রাখা আছে।তবে সাইকেল গুলি খোলা আকাশের নিচের রাখা হয়েছে এর যাবতীয় দায়দায়িত্ব ব্লক প্রশাসনের।
তবে সাইকেলগুলি রােদে জলে নষ্ট হচ্ছে সে কথা কি তিনি প্রশাসনকে জানিয়েছিলেন
এবিষয়ে সালানপুর ব্লক আধিকারিক অদিতি বসু বলেন তিনি এবিষয়ে জানতেননা তবে খুব দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানান।তাছাড়া যাতে করে
সাইকেলগুলি দ্রুত স্কুল
পড়ুয়াদের হাতে তুলে দেওয়া যায় সে দিকটিও তিনি দ্রুত দেখছেন ।এ প্রসঙ্গে আছড়া পঞ্চায়েত উপপ্রধান হরেরাম তেওয়ারী বলেন বিষয়টি জানা মাত্রই তিনি স্কুল কমিটি সহ সংশ্লিষ্ট সমস্ত বিভাগের সঙ্গে যােগাযােগ করেছেন।তাছাড়া যাতে সাইকেল গুলি ত্রিপল দিয়ে যাতে ঢাকা দেওয়া যায় সেই বাবস্থা করছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *