হাইকোর্ট সংবাদ

নারদায় মমতা – মলয় – কল্যাণ কে যুক্ত করায় নিন্দা বার কাউন্সিলের

নারদায় মমতা – মলয় – কল্যাণ কে যুক্ত করায় নিন্দা বার কাউন্সিলের

মোল্লা জসিমউদ্দিন টিপু,
সাধারণত কোন আইনজীবী কে সরাসরি কোন মামলায় পক্ষভুক্ত করা যায়না বার কাউন্সিল কে না জানিয়ে। তাই এই মুহূর্তে সর্বভারতীয় আঙিনায় বহু চর্চিত নারদা মামলায় রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় , আইনমন্ত্রী মলয় ঘটক  এবং সাংসদ কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়দের পক্ষভুক্ত করা নিয়ে তীব্র নিন্দা জানালো বার কাউন্সিল অফ ওয়েস্ট বেঙ্গল।বুধবার প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এই নিন্দা জানানো হয়েছে। আইনজীবী হিসাবে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়,মলয় ঘটক কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়,  বার কাউন্সিল অফ ওয়েস্ট বেঙ্গলের নথিভুক্ত। তাই নারদা মামলায় কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা সিবিআই বার কাউন্সিল অফ ওয়েস্ট বেঙ্গল কে লিখিতভাবে না জানিয়ে নারদা মামলায় পক্ষভুক্ত করতে পারে না বলে জানিয়েছেন কাউন্সিলের শৃঙ্খলা রক্ষা কমিটির পদাধিকারী আনসার মন্ডল। পাশাপাশি আনসার বাবু প্রশ্ন তুলেছেন গত ১৭ ই মে এর কলকাতা হাইকোর্টের স্থগিতাদেশ জারির নির্দেশ নিয়ে। তাঁর প্রশ্ন – ”  আত্মপক্ষ সমর্থনের সূযোগ না দিয়ে একতরফাভাবে নির্দেশ টি দেওয়া হয়েছিল। ওই দিন তার আগে নিম্ন আদালতে জামিন মঞ্জুর হওয়া সত্বেও চার ঘন্টা অন্যায়ভাবে আটক করে রেখেছিল সিবিআই”। নারদা মামলায় আইনজীবী হিসাবে নথিভুক্ত মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, মলয় ঘটক এবং কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায় কে সিবিআইয়ের পক্ষভুক্ত করা (তাও বার কাউন্সিল কে লিখিতভাবে না জানিয়ে) একপর্যায়ে আইনজীবীদের সম্মানহানির সামিল বলে জানিয়েছেন বার কাউন্সিল অফ ওয়েস্ট বেঙ্গলের পক্ষে আনসার মন্ডল। উল্লেখ্য,  কলকাতা হাইকোর্টের গত ১৭ ই মে নিম্ন আদালতের জামিনে স্থগিতাদেশ জারি করা নিয়ে আদালতের ভূমিকায় প্রশ্ন রেখে এক কর্মরত বিচারপতির চিঠি ভাইরাল হয়েছিল সোশাল মিডিয়ায়। 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *