প্রশাসন

সালানপুরে বৃদ্ধাশ্রমে আহারের আয়োজনে এরা

বৃদ্ধাশ্রমে থাকা আবাসিক ও লাপ্রসি কলোনির বাসিন্দাদের মুখে খাবার তুলেদিয়ে স্বর্গীয় মায়ের মৃত্যু বার্ষিকী পালন করলেন সামশ্রী মজুমদার

কাজল মিত্র, :- করোনা মহামারীর দ্বিতীয় ঢেউ এর শুরু থেকেই লকডাউন চলছে আর এই লকডাউনে বহু মানুষ অসহায় হয়েপড়েছে ।অনেকে কোনরকমে খাবার খেয়ে দিনযাপন করছে ।তবে লকডাউনে সাধারণ মানুষের পাশে এসে দাঁড়িয়েছে বহু সমাজ সেবী সংগঠন ,ক্লাব, ও সহৃদয় মানুষ।
তাছাড়া সালানপুর ব্লকের হিন্দুস্তান পুনর্বাসন কমিটির উদ্যোগে গড়ে উঠেছে বৃদ্ধাশ্রম যেখানে রয়েছে প্রায় 15 জন বৃদ্ধ ও বৃদ্ধা । এই বৃদ্ধাশ্রমে বসবাস করি মানুষের পাশে এসে দাড়িয়েছে অনেকেই । এমনই কিছু মানুষ রয়েছে যারা এই লকডাউনে অনুষ্ঠান বাতিল করে বাড়তি টাকা খরচ না করেস্বরনীয় দিন গুলিকে আরো স্বরনীয় করে রাখতে সাধারণ অসহায় মানুষ ও অনাথ আশ্রমে কাটাতে এগিয়ে আসে। এমনই এক রূপনারায়ানপুর এর বাসিন্দা বাপন মজুমদার ও তার স্ত্রী শ্যেমশ্রী মজুমদার এর মায়ের দশম মৃত্যু বার্ষিকী উপলক্ষে ইউনাইটেড ক্লাব এর সহায়তায় কালীপাথর লাপ্রসি কলোনীর অসহায় মানুষের পাশে গিয়ে দুপুরে খাবার বিতরণ করেন এবং
হিন্দুস্তান কেবলস পুনর্বাসন কমিটির উদ্যোগে গড়ে ওঠা বৃদ্ধাশ্রমের15 জন বৃদ্ধ বৃদ্ধার কাছে গিয়ে দুপুরের খাবার পরিবেশন করেন ।
এই সম্পর্কে সৌমশ্রী মজুমদার বলেন যে তার মা স্বর্গীয় লক্ষ্মী চৌধুরীর দশম মৃত্যু বার্ষিকী উপলক্ষে তিনি ও তার পরিবার একত্রিত হয়ে
সালানপুর ব্লকের হিন্দুস্তান পুনর্বাসন কমিটির উদ্যোগে যে বৃদ্ধাশ্রম গড়ে উঠেছে যেখানে 15 জন বৃদ্ধ ও বৃদ্ধা ও কালীপাথর লাপ্রসি কলোনির বাসিন্দাদের মধ্যে খাবার বিতরণ করেন কারন তিনি বলেন অযথা টাকা খরচ নাকরে সেই টাকা সমাজের কল্যানে যাতে কাজে লাগে সেই চেষ্টাই করলেন ।তবে তিনি চান সকলেই যেন নিজের নিজের স্বরনীয় দিনগুলি এভাবে এইসকল সাধারণ মানুষের পাশে থেকে দিনটি উপভোগ করতে ।
তারা জানান লকডাউনে পরিস্থিতিতে একে অপরের পাশে থেকেই আমাদের কাজ করে যেতে হবে আর তাই সেই কথা ভেবেই যাতে কিছুটা হলেও আমরা পাশে থাকতে পারি এই নিয়ে আমাদের উদ্যোগ ।আমরা পরবর্তী ক্ষেত্রে আবার এইসব মানুষের পাশে থাকতে চাই ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *