সাহিত্য বার্তা

নস্টালজিয়া

নস্টালজিয়া,
দেবস্মিতা রায় দাস,

সেই সুদূরের পথে যাবে যেখানে তুমি আর আমি হাঁটবো হাত ধরে..

আর মিলিয়ে যাব দূর দিগন্তে শতেক আলোকবর্ষের মতোন..

অপলক চোখ করে চলবে দুটি প্রাণের কতো না বলা কথায় নীরব অবগাহন!

আকাশ, বাতাস, নক্ষত্র যারা শতেকবর্ষ ধরে আকাশে করে বিচরণ, সাক্ষী থাকবে তারা!

আর সাথে তুলে নেব কিছু বালুকারাশি, নুড়ি, ঝিনুক কষ্টিপাথরে যাচাই করে..

সাথে থাকবে আমাদের.. মুক্ত ঝর্ণার থেকে প্রাণ আহরণ করে নিয়ে আসবে..

আকন্ঠ সেই প্রবল আনন্দ তাদের থেকে পান করে আবার ভাসিয়ে দেব তাদের অকূল জলসমূহে..

বয়ে নিয়ে যাবে আমাদের যতো ক্লেশ, গ্লানি, কষ্ট, দুঃখ আর না পাওয়ার ব্যর্থতা!

শেখাবে সহনশীলতা, সহমর্মিতার বাণী

এরপর হেঁটে যাব সেই বালুকারাশির পথ ধরে নিস্তব্ধ অবুঝ পায়ের ছাপ রেখে..

অগুন্তি পায়ের ছাপ বহন করবে বিদগ্ধ আত্মার মুক্তি..

ধীরে ধীরে পৌঁছাবো সেখানে, সেই পরম শান্তি স্নিগ্ধতার স্থানে..

যেখানে দুটো বিদগ্ধ আত্মা মিলিত হয়েছে মুক্তির আনন্দে..

পরম উল্লাসে আঙুলের আঙুল জড়িয়ে একে অপরের সাথে ভাগ করে নেব সেই মুক্তির আনন্দ!

কোনো কামুক দৃষ্টিভঙ্গি নয়.. অন্তরঙ্গ ভালোবাসা, প্রেম নয়..

একে অপরের আত্মার মধ্যে বিলীন হয়ে মানবজন্ম করব অক্ষয়।।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *