গোপাল দেবনাথ,

ভাল বাসা- উৎকর্ষতা ও শ্রেষ্ঠত্বের স্বপ্ন যাপন, আবাসন ক্ষেত্রের সেরার সেরাদের শিরোপা টিভি ৯ বাংলার

কলকাতা ২ জুন: দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে আবাসন শিল্পের অবদান গুরুত্বপূর্ণ। কোভিডের প্রথম ওয়েভের সময় এই ক্ষেত্রও প্রবল ধাক্কা খেয়েছিল। কিন্তু পরিস্থিতির ক্রম উন্নতির সঙ্গে সঙ্গে আবাসন শিল্পও ঘুরে দাঁড়াতে শুরু করে।

গত ৩১ মে কলকাতার আইটিসি সোনার-এ ‘ভালো বাসা ২০২২’-এর আয়োজন করেছিল টিভি৯ বাংলা। এই অনুষ্ঠানে বিভিন্ন রিয়েল এস্টেট ও সহযোগী সংস্থাকে দৃষ্টান্তমূলক কাজের জন্য পুরস্কৃত করা হয়। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় এক নক্ষত্রখচিত অনুষ্ঠানে মোট ছ’টি রিয়েল এস্টেট ও তার সঙ্গে যুক্ত কোম্পানিকে গত এক বছরে এই শিল্পক্ষেত্রে অসাধারণ অবদানের জন্য পুরস্কৃত করেছে টিভি৯ বাংলা।

অনুষ্ঠানে রাজ্যের পরিবহন, পুর ও নগরোন্নয়ন মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম বলেছেন, ‘নগর পরিকল্পনায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে রিয়েল এস্টেট ক্ষেত্র। শহরকে আন্তর্জাতিক মানের হিসেবে গড়ে তুলতে রিয়েল এস্টেট সংস্থাগুলিকে সব ধরনের সহায়তা করেছে পশ্চিমবঙ্গ সরকার। বিশেষত, কোভিড মহামারির পরে রাজ্য সরকারের তরফে রিয়েল এস্টেট সংস্থাগুলিকে নানা ছাড় ও সহয়তা করা হয়েছে।’

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় অনুষ্ঠিত এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের অর্থ প্রতিমন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য। এমন একটি গুরুত্বপূর্ণ অনুষ্ঠান আয়োজনের জন্য টিভি৯ বাংলা’র উদ্যোগের ভূয়সী প্রশংসা করেন তিনি। মন্ত্রী বলেছেন, ‘রাজ্যের জন্য রিয়েল এস্টেট পরিকাঠামো খুব জরুরি। করোনা মহামারি থেকে এখনও পর্যন্ত রাজ্য সরকার এই শিল্পের সঙ্গে যুক্ত সমস্ত সংস্থাকে সমস্ত ধরনের সহায়তা করেছে। বর্তমানে রাজ্যে RERA-র নিয়ম মেনে চলা হয় এবং মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় রিয়েল এস্টেট সংস্থাগুলির পাশে থাকার জন্য আমাদের স্পষ্ট নির্দেশ দিয়েছেন। কারণ রাজ্যের জিডিপি বৃদ্ধিতে রিয়েল এস্টেট জরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নিচ্ছে।’

লাক্সারি রেসিডেন্সিয়াল বা বিলাসবহুল আবাসন শ্রেণীতে টিভি৯ বাংলা এক্সেলেন্স অ্যাওয়ার্ড পেয়েছে জৈন গ্রুপ। মধ্যবিত্তের বাসস্থান নির্মাণ শ্রেণীতে উৎকর্ষের জন্য পুরস্কার জিতেছে মার্লিন গ্রুপ।
এমআইজি হাউজিং প্রোজেক্ট শ্রেণীতে উৎকর্ষতার জন্য এদিন সান গ্রুপ-এর হাতে পুরস্কার তুলে দেওয়া হয়। অন্যদিকে, পশ্চিমবঙ্গে বাণিজ্যিক ভবন নির্মাণে উৎকর্ষতার জন্য পুরস্কৃত হয়েছে ইউনিমার্ক গোষ্ঠী।
অ্যাফোর্ডেবল হাইজিং বা আয়ত্ত্বের মধ্যে ঘর। আবাসন শিল্পে এক বিরাট কর্মকাণ্ড শুরু হয়েছে এই শ্রেণীর নির্মাণে। এই শ্রেণীতে পুরস্কৃত হয়েছে রাঘব গৃহ নির্মাণ প্রাইভেট লিমিটেড। ইন্টিরিওর ডিজাইনিং বা অন্দরসজ্জায় উৎকর্ষতার জন্য ঊর্বশী বসুকে এদিন পুরস্কৃত করা হয়।
এই অনুষ্ঠানে ‘কাঠামোর কারিগর’ ও ‘স্বপ্নের বাড়ি’ নামে দু’টি মনোজ্ঞ আলোচনাচক্র অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে বিশিষ্টদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন শিল্পী শুভাপ্রসন্ন, স্থপতি মিলন দত্ত, ইন্টিরিওর ডিজাইনার ঊর্বশী বসু, শ্যাম স্টিলের তরফে গৌতম বারিওয়াল, বার্জার পেইন্টস্-এর তরফে নির্মাল্য কুমার এবং এসবিআইএইচএম-এর তরফে বিদিশা সরকার।
অনুষ্ঠানের উদ্বোধনী ভাষণে টিভি৯ বাংলা-র ম্যানেজিং এডিটর অমৃতাংশু ভট্টাচার্য বলেন, ‘রিয়েল এস্টেট এমন একটি ক্ষেত্র যার প্রভাব বহুমুখী। একজন সাধারণ মানুষ তাঁর সারা জীবনের সবথেকে বড় অর্থ বিনিয়োগ করেন নিজের বাড়ি বা ফ্ল্যাট কিনতে। তাছাড়া রিয়েল এস্টেটের সঙ্গে যে সমস্ত ক্ষেত্র জড়িত সেগুলি শ্রমনিবিড়। এই ক্ষেত্রগুলির মধ্যে অন্যতম হল লোহা ও ইস্পাত, সিমেন্ট, রং, ইলেকট্রিক্যাল, স্যানিটারিওয়্যার, ইন্টিরিওর ডেকোরেশন আইটেম।
‘ভালো বাসা’র অনুষ্ঠানের সহ-নিবেদক ডিয়ার লটারি এবং পাওয়ারড্ বাই শ্যাম স্টিল। অনুষ্ঠানের অ্যাসোসিয়েট স্পনসর হিসেবে ছিল বেনারসী নিকেতন এবং ডামরো।
হসপিটালিটি পার্টনার হিসেবে ছিল সুভাষ বোস ইনস্টিটিউট অফ হোটেল ম্যানেজমেন্ট এবং বেভারেজ পার্টনার ছিল দেওয়ারস্ হাইবল সোডা ওয়াটার।
(END)


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *