পিঠাকেয়ারী হাসপাতালের প্রখ্যাত চিকিৎসক ডাক্তার অমরেশ মাজি কর্মরত ছয়জন কর্মচারীর হাতে তুলে দিলেন আড়াই হাজার টাকা

কাজল মিত্র :-আজ ২৬ জানুয়ারি প্রজাতন্ত্র দিবস উপলক্ষ্যে সালানপুর ব্লক পিঠাকিয়ারি গ্রামীণ হাসপাতালে উপস্থিত থেকে সহমর্মিতার অনন্য নজির রাখলেন পিঠাকেয়ারী হাসপাতালের প্রখ্যাত চিকিৎসক ডাক্তার অমরেশ মাজি।তিনি পিঠাকারী হাসপাতালের কর্মরত ছয়জন কর্মচারীর হাতে তুলে দিলেন আড়াই হাজার করে টাকা সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিলেন।এই সাহায্য এর হাত বাড়িয়ে দেওয়ার একমাত্র কারন হিসেবে জানাযায় যে সালানপুর ব্লকের
পিঠাকেয়ারী হাসপাতালে
ঠিকাদার দ্বারা নিযুক্ত এইসব
ঠিকা কর্মীরা ছয় মাস ধরে কোনরকম বেতন পাচ্ছেন না।আর তারা বেতন হাতে না পাওয়ায় সংসার চালাতে অনেকটাই অসুবিধার সম্মুখীন হতে হচ্ছিল।অথচ তারা হাসপাতালের হাউসকিপিং স্টাফ হিসেবে নিযুক্ত থাকলেও হাসপাতালে প্রায় সবরকম কাজই তাদের দিয়ে করানো হত।করোনা পরিস্থিতিতে অন্যান্যদের মতই এরাও জীবনের ঝুঁকি নিয়ে সমস্ত রকম কাজ করতেন।
আর তাদের এই অসুবিধার কথা উপলব্ধি করেই ডাক্তার অমরেশ মাজি সিদ্ধান্ত নেন যৎসামান্য হলেও তাদের পাশে দাড়ি তিনি সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেন।
আর তাই সালানপুর ব্লকের পিঠাকেয়ারী হাসপাতালের ব্লক স্বাস্থ্য আধিকারিক ডাক্তার সুব্রত শিট এবং অন্যান্য কর্মীদের উপস্থিতিতে ডাক্তার অমরেশ মাজি এই হাসপাতালের উপস্থিত ছয় জন কর্মরত কর্মচারীর হাতে
আড়াই হাজার টাকা নগদ সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেন ।
তবে ডক্টর অমরেশ মাজি বলেন এই বিষয়টি একেবারেই প্রচার করার মতো নয় তবে প্রতিদিন যাদের নিয়ে তিনি কাজ করছেন তাদের পাশে তাদের অসুবিধায় কিছুটা হলেও সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিতে পেরে তিনি অন্তর থেকে স্বস্তি পাচ্ছেন। ডাক্তারবাবুর এই মানবিক সহযোগিতায় আপ্লুত কর্মীরা দৃশ্যত আবেগ চেপে রাখতে পারেন নি ।তারা ডাক্তারবাবুর পায়ে হাত দিয়ে প্রণাম করেন বিষয়টি নিয়ে অত্যন্ত গর্বিত ব্লক স্বাস্থ্য আধিকারিক ডাক্তার শিট ।তিনি বলেন এমন হৃদয়বান মানুষ চিকিৎসক হিসেবে যেমন জনপ্রিয় তেমনই হাসপাতালের কর্মীদের কাছেও আদর্শের।ব্লক স্বাস্থ্য আধিকারিক বলেন এদের বেতন যাতে নিয়মিত দেওয়া হয় সেজন্য তিনি পশ্চিম বর্ধমান জেলা স্বাস্থ্য আধিকারিকে কাছে তদবির করে চিঠি দিয়েছেন।এ প্রসঙ্গে জেলা স্বাস্থ্য আধিকারিক ডাক্তার ইউনূস বলেন তিনি রাজ্যের স্বাস্থ্য ভবনে বিষয়টি জানিয়ে চিঠি পাঠিয়েছেন । তিনি আশা করছেন সপ্তাহখানেকের মধ্যেই এ বিষয়ে পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *