নন্দীগ্রামে বিজেপি কর্মী খুনের মামলায় অভিযুক্ত তৃণমূল কর্মীদের জামিন খারিজ 

এস.মন্ডল
বৃহস্পতিবার দুপুরে কলকাতা হাইকোর্টের তরফে পূর্ব মেদিনীপুর জেলার নন্দীগ্রামের দেবব্রত মাইতি খুনের ঘটনায় চার অভিযুক্তের জামিনের আবেদন খারিজ করল।এদিন সেখ মুক্তারদে রহমান, সেখ বাইতুল, সেখ এমাদুল ইসলাম, সেখ নজরুল ইসলামের জামিনের আবেদন খারিজ করেছে কলকাতা হাইকোর্ট । এদিন কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি দেবাংশু বসাক ও বিচারপতি বিভাস রঞ্জন দে-র ডিভিশন বেঞ্চ জামিনের আবেদন খারিজ করে থাকে ।একুশে বিধানসভাভোট পরবর্তী হিংসার শিকার হয়েছিলেন  নন্দীগ্রামের বিজেপি নেতা দেবব্রত মাইতি। গত ২০২১ সালের ৩ মে রাত সাড়ে দশটা নাগাদ আক্রান্ত হয়েছিলেন  দেবব্রত মাইতি। প্রথমে তাঁকে স্থানীয় হাসপাতালে ও পরে তাঁকে কলকাতায় চিকিত্‍সার জন্য নিয়ে আসা হয়। কয়েকদিনের মধ্যেই দেবব্রত মাইতির মৃত্যু হয়। এই মামলায় কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা সিবিআইয়ের রিপোর্ট অনুযায়ী এই মামলার প্রধান অভিযুক্ত সেখ সুপিয়ান। গত ২০২১ সালের বিধানসভা নির্বাচনে তিনি নন্দীগ্রামের তৃণমূলের পোলিং এজেন্ট ছিলেন। সেখ সুফিয়ান প্রথমে হাইকোর্টে আগাম জামিনের আবেদন করেন। সেই আবেদন খারিজ হয়ে যায়। তারপর তিনি সুপ্রিমকোর্টে আগাম জামিনের আবেদন করেন। সুপ্রিম কোর্ট শর্ত সাপেক্ষে শেখ সুপিয়ানকে আগাম জামিন মঞ্জুর করে। সুপ্রিম কোর্টের তরফে জানানো হয়, দোষী সাব্যস্ত না হওয়া পর্যন্ত তাঁকে গ্রেফতার করা যাবে না। তবে শেখ সুফিয়ানকে সিবিআইকে সাহায্যের নির্দেশ দিয়েছিল সুপ্রিম কোর্ট । দেবব্রত মাইতি খুনের ঘটনায় তৃণমূল যুক্ত  রয়েছে বলে বিজেপির তরফে বারবার অভিযোগ তোলা হয়। তবে তৃণমূল সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করে থাকে ।বৃহস্পতিবার কলকাতা হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চে নন্দীগ্রামে বিজেপি কর্মী খুনের মামলায় অভিযুক্ত চার তৃণমূল কর্মীর  জামিন খারিজ হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *