মুকুল বিশ্বাস

: ৩৪ বছরে ব্যারিস্টার হলেন ভারতীয় আইনজীবী বিবেক সিদ্ধালিঙ্গাইয়া। কর্ণাটকের ব্যাঙ্গালোরে জন্ম এবং বেড়ে ওঠা এই যুবক আপাতত চাকরিও করছেন ব্রিটেনের বিচার মন্ত্রকের অধীনে। তবে তিনি দেশে ফিরে সুপ্রিম কোর্টে প্র্যাকটিস শুরু করতে চান বলে জানিয়েছেন। বিচারপতি হওয়ারও স্বপন রয়েছে তাঁর।
২০০৮ সালে ল’ পাশ করে ব্যারিস্টার হবেন ভেবেছিলেন। তবে পথ অত সহজ ছিল না। তাঁর কাছে না ছিল কোনও তথ্য না ছিল পথ দেখানোর কেউ। তাই , ল’ পাশ করে কর্ণাটক হাইকোর্টে প্র্যাকটিস শুরু করেন তিনি। পাশাপশি চালাতে থাকেন ব্যারিস্টার হওয়ার স্বপ্ন পূরনের চেষ্টা। লন্ডনের যে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে গান্ধীজি ব্যারিস্টার হয়েছিলেন সেখানে এলএলএম এর জন্য ভর্তি হন বিবেক। ড. বি আর আম্বেদকর লন্ডনের যে ইনের মেম্বার ছিলেন সেই ইনের ক্যাম্পাসের মধ্যেই ছিল বিশ্ববিদ্যালয়টি। পুরো পরিবেশ তাঁকে উদ্বুদ্ধ করতো বলে বিবেক জানান। এলএলএম করবার পর ২০১৪ সালে ফের তিনি ব্যারিস্টার হওয়ার চেষ্টা করেন কিন্তু বিভিন্ন কারণে পিছিয়ে আসতে হয়।
এরপর ২০১৯ সালের শুরুতেই লন্ডনের বার স্ট্যান্ডার্ড বোর্ডের কাছে আবেদন করেন বিবেক। তাঁর অভিজ্ঞতা এবং শিক্ষাগত যোগ্যতা দেখে তার আবেদন মঞ্জুর করে বোর্ড। তাঁকে পরীক্ষায় বসার অনুমতি দেওয়া হয়। কিন্তু কোভিডের কারণে পিছিয়ে যেতে থাকে পরীক্ষা। অবশেষে চলতি বছরে সব পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হন বিবেক। গত মাসে লন্ডনের বৃহত্তম ‘লিংকনস ইন’ তাকে সদস্য হিসেবে গ্রহণ করে।
বিবেকের কথায়, পথটা খুব সহজ ছিল না। গাইড করার কেউ ছিল না। তবে শেষ পর্যন্ত সপ্ন পূরণ করতে পেরে ভালো লাগছে। আপাতত লন্ডনে থাকলেও দেশে ফিরে বিচারব্যবস্থার জন্য কাজ করার ইচ্ছে রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *