সবজি থেকে ফলমূল অগ্নিমূল্য, তবুও লক্ষ্মী আরাধনায় বর্ধমান

প্রশাসন

সানি প্রসাদ

আগামীকাল ঘরে ঘরে লক্ষ্মীর আরাধনায় মাতবে সকলে। কিন্তু লক্ষ্মী আরাধনা করতে গিয়ে রীতিমত হিমসিম খাচ্ছে সাধারণ মধ্যবিত্ত পরিবার। শনিবার বর্ধমান শহরে গত কয়েকবছরের রেকর্ড ভেঙ্গেই প্রতিমার দাম বেড়েছে কয়েকগুণ। ন্যূনতম ১৫০ থেকে ছাঁচের প্রতিমার দাম দেড় – দু হাজারেও বিকোলো লক্ষ্মীপুজোর আগের দিন বর্ধমানের বাজারে। পুজোর আগে থেকেই কাঁচা সবজির দাম চড়েই ছিল। এদিন থেকেই আরও দুধাপ চড়ল কাঁচা সব্জি। ফুলকপি একেবারে ছোট সাইজ থেকে মাঝারি সাইজের প্রতিটির দাম পড়ল ২০ টাকা থেকে ৪০ টাকা। মিষ্টি কুমড়ো কেজি প্রতি দাম একলাফে বেড়ে ১৪ থেকে ২০ টাকা। বেগুনের চাহিদা অনুসারে যোগান রীতিমত কম থাকায় পুজোর সময় থেকেই ৪০ টাকার কেজি প্রতি বেগুনের দাম লক্ষ্মীপূজোর বাজারে গিয়ে দাঁড়ালো ৬০ টাকা প্রতি কেজি। কাঁচা সব্জির পাশাপাশি আপেল ১২০ টাকা কেজি, মোসাম্বি লেবু ২০টাকা প্রতিটি, পিয়ারা ৮০ টাকা কেজি, ছোট নারকেল ২০ টাকা থেকে ৮০ টাকা পর্যন্ত সাইজ অনুসারে বিকিয়েছে এদিন। আখের দাম ২০টাকা পিস। গতবার এরই দাম ছিল ১০-১২ টাকা। শিসযুক্ত ডাব একেবারেই ছোট সাইজ গতবার যা ছিল ২০ টাকা প্রতিটির, এবারে তারই দাম শুরু হচ্ছে ৩০ টাকা থেকে। কাঠাঁলী কলার দাম ৪৫ টাকা থেকে ৫৫ টাকা ডজন প্রতি। শাঁখালুর দাম একলাফে বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৬০ টাকা প্রতি কেজি। সবমিলিয়ে চড়া বাজারে হাত দিতেই মধ্যবিত্তের হাতে ছ্যাঁকা লাগার জোগাড়। তবুও দিকে দিকেই চলছে লক্ষ্মীপুজোর জোরদার প্রস্তুতি। 

Leave a Reply

Your email address will not be published.