দীঘায় প্লাস্টিক দুষণ রুখতে তৎপরতা

পুলিশ

জুলফিকার আলি

পুজোর পর সৈকতনগরী দীঘায় প্লাসটিক ও থার্মোকলের সামগ্রীর ব্যবহার বন্ধ করতে উদ্যোগ শুরু করল প্রশাসন। শুক্রবার দীঘা জুড়ে অভিযান চালিয়ে প্রচুর প্লাসটিক ও থার্মোকলের সামগ্রী বাজেয়াপ্ত করা হয়। শুধু তাই নয়, এদিন সকাল থেকে গোটা দীঘা সৈকত জুড়ে প্লাসটিকের সামগ্রীর ব্যবহার বন্ধ করার আহ্বান জানিয়ে মাইকিং প্রচারও করা হয়। প্লাসটিক যাতে কেউ যত্রতত্র ফেলতে না পারে, স্থায়ী দোকান কিংবা পসরা সাজিয়ে বসা দোকানগুলিতে যাতে পলিব্যাগ, প্লাসটিকের গ্লাস কিংবা থার্মোকলের থালা, বাটি, গ্লাস বিক্রি না হয়, সেব্যাপারে নজরদারি চালানোর জন্য দীঘা-শঙ্করপুর উন্নয়ন সংস্থার পক্ষ থেকে ৫জন কর্মী নিয়োগ করা হয়েছে। প্রশাসনের তরফে বলা হয়েছে, তাঁরা দীঘা জুড়ে সর্বত্রই নজরদারি চালাবেন। কোনও দোকানে-বাজার, দীঘায় আগত পর্যটক কিংবা স্থানীয় বাসিন্দারা-কেউ প্লাসটিক বা থার্মোকলের সামগ্রী ব্যবহার করলে সঙ্গে সঙ্গে তা বাজেয়াপ্ত করবেন তাঁরা। শুধু তাই নয়, কেউ নিষেধাজ্ঞা অমান্য করলে তাকে ৫০০টাকা জরিমানাও করা হবে।
উন্নয়ন সংস্থার মুখ্য কার্যনির্বাহী আধিকারিক সুজন দত্ত বলেন, সৈকতে দূষণ ঠেকাতে এবং পরিবেশ রক্ষার স্বার্থে প্লাসটিক ও থার্মোকলের সামগ্রীর ব্যবহার বন্ধ করতে আমরা বদ্ধপরিকর।

Leave a Reply

Your email address will not be published.