মঙ্গলকোটে সদ্য গড়া সেতুতে বড় ফাটল, উঠছে প্রশ্নচিহ্ন

প্রশাসন

মোল্লা জসিমউদ্দিন

জ্যোতিপ্রকাশ মুখার্জি

; নব নির্মিত সেতুতে মরণফাঁদ? এই বিশাল গর্তটি  রয়েছে  গুসকরা-নতুনহাট সড়কপথের  উপর উজিরপুরের কাছে। ভাসাপুলের নবনির্মিত সেতুতে। শতাব্দী প্রাচীন ভাসাপুল সেতুটি দুর্বল হওয়ার জন্য বছর তিন-চার আগে  প্রায় ৬০ লক্ষ টাকা খরচ করে এই সেতুটি নির্মাণ করা হয়। দীর্ঘদিন জমি জটে আটকে থাকার পর সম্প্রতি সেটি গাড়ি চলাচলের জন্য খুলে দেওয়া হয়। তবে গুসকরা থেকে কাশেমনগর আসার সময় সেতুর উপর ওঠার মুখে ঠিক বাম (পশ্চিম) দিকে সৃষ্টি হয়েছে এক বিরাট ফাটল এবং সেটি ধীরে ধীরে এগিয়ে আসছে পূর্ব দিকে। ভালভাবে লক্ষ্য করলে দেখা যাবে ফাটলের গভীরতা যথেষ্ট বেশি। এই রাস্তা দিয়ে প্রচুর যাত্রীবাহী, মালবাহী ও দু’চাকার গাড়ি চলাচল করে থাকে ।স্থানীয়দের বক্তব্য – উভয় দিকে সেতুতে নামা-ওঠার মুখে মাটি ভরাট করার সময় যথেষ্ট সতর্কতা অবলম্বন করা হয়নি। মাটি বসে যাবার ফলে এই সমস্যার সৃষ্টি হচ্ছে। তাদের আশঙ্কা দ্রুত ব্যবস্থা না নিলে যেকোনো মুহূর্তে বড় দুর্ঘটনা ঘটে যেতে পারে। অজয় নদ থেকে প্রতিদিন শয়ে শয়ে অভারলোডিং বালির গাড়ি যাতায়াত করে থাকে এই সেতুর উপর দিয়ে। তাই সেতুর বিপদ আরও বাড়ছে।সেতুর ফাটল সম্পর্কে মঙ্গলকোট বিডিও মুস্তাক আহমেদ জানান – “বিষয়টি গুরত্ব সহকারে খতিয়ে দেখছি”।  মঙ্গলকোট থানাও ওই সেতুতে দুর্ঘটনা রোধে পুলিশি নজরদারি বাড়ানোর কথা ভাবছে বলে জানা গেছে।       

Leave a Reply

Your email address will not be published.