পৈতৃকভিটেয় লোকসংস্কৃতি উৎসবের সূচনায় পঞ্চায়েত মন্ত্রী

প্রশাসন

শ্যামল রায়,

শনিবার ২৯ তম আন্তর্জাতিক লোক সংস্কৃতি উৎসব কৃষি হস্ত শিল্প আদিবাসী মেলার উদ্বোধন করলেন রাজ্যের পঞ্চায়েত মন্ত্রী সুব্রত মুখার্জি।মেলার উদ্বোধন করতে গিয়ে তিনি বলেন যে এই ধরনের মেলা হচ্ছে মানুষের মানসিক শান্তির পাশাপাশি জাতি ধর্ম নির্বিশেষে সকলের একটা মিলন ক্ষেত্রের রূপ নেয়। তাই আমাদের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এই ধরনের মেলার গুরুত্ব আরোপ করে প্রতিনিয়ত বিভিন্ন ধরনের উৎসব করা হচ্ছে সরকারের তরফ থেকে। কিন্তু উল্লেখ করতে হয় যে এই ধরনের উৎসব আমাদের সরকারের আমলেই সম্ভব হচ্ছে বিগত দিনে আমরা কখনো দেখিনি তাই কেউ কেউ এই মেলাকে ঘিরে বিদ্রুপ করে থাকে কিন্তু মানুষ আমাদের সাথে আছেন মানুষ আমাদের এই কর্মযজ্ঞ কে সমর্থন করেন তাই আজ এই ধরনের মেলাগুলো জনজোয়ারে পরিণত হচ্ছে।মেলাকে কেন্দ্র করে দুপুর থেকে বিশাল বড় বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা বের হয়। শোভাযাত্রায় অংশ নিয়েছিলেন রাজ্যের মন্ত্রী উৎসব কমিটির প্রধান কর্ণধার স্বপন দেবনাথ সাথে ছিলেন রানী রাসমণি ও জয়ী টিভি সিরিয়াল খ্যাত অভিনেতা অভিনেত্রীরা।এদিন দুপুর বেলায় বিদ্যানগর মোড় থেকে শুরু হয়ে হেমাতপুর পর্যন্ত শোভাযাত্রাটি শেষ হয়। শোভাযাত্রায় ছৌনাচ থেকে শুরু করে বিভিন্ন ধরনের ব্যান্ডের বাজনা এবং স্বনির্ভর গোষ্ঠীর সদস্য সদস্যরা বিভিন্ন ধরনের ট্যাবলেট সহ শোভাযাত্রায় অংশগ্রহণ করেছিল।শোভাযাত্রা শেষে মেলার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন হয়।এই লোক সংস্কৃতি উৎসব এ দেশের নয়টি রাজ্যর শিল্পীরা অংশগ্রহণ করেছে এছাড়াও বাংলাদেশ এসপেন ইউক্রেনের শিল্পীরা অংশ নিয়েছেন জানিয়েছেন প্রধান কর্ণধার স্বপন দেবনাথ। মেলার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন কালে উপস্থিত ছিলেন মন্ত্রী সুব্রত মুখার্জি জেলা পরিষদের সভাধিপতি শম্পা ধারা সহ সভাধিপতি জেলা পুলিশ সুপার ভাস্কর মুখোপাধ্যায় সাংসদ সুনীল মণ্ডল মহকুমাশাসক নিতীন স্থানীয় সমষ্টি উন্নয়ন আধিকারিক পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি দিলীপ মল্লিক বিধায়ক রবীন্দ্রনাথ চট্টোপাধ্যায় জেলা পরিষদের কর্মদক্ষ বাগবুল ইসলাম শ্রী চৈতন্য মাঠের মহারাজ জয়ন্ত রায় সহ একাধিক প্রশাসনিক আধিকারিক ও জনপ্রতিনিধিরা। প্রতিদিন মেলা প্রাঙ্গনে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান সরকারি প্রকল্পের উপর আলোচনা সভা বিভিন্ন ধরনের প্রতিযোগিতামূলক অনুষ্ঠান কুইজ লোক নিত্য সঙ্গীত নাচ গ্রামীণ কবি সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে।
আঞ্চলিক হস্তশিল্প মেলা অনুষ্ঠিত হচ্ছে এই মেলা প্রাঙ্গণে ১৬০ টি স্টল বসেছে এছাড়াও নয়টি প্যাভেলিয়ন রয়েছে।মেলাকে কেন্দ্র করে লক্ষাধিক মানুষের ভিড় হয়েছিল আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন অনুষ্ঠানে কেন্দ্র করে টিভি সিরিয়াল খ্যাত অভিনেতা অভিনেত্রীদের দেখতে।মেলা প্রাঙ্গণে প্রাণী সম্পদ বিকাশ দপ্তর এর তরফ থেকে স্টল স্বাস্থ্য দপ্তরের স্টল কৃষি বিভাগ এর তরফ থেকে স্টল সহ একাধিক স্টল বসেছে। সরকারি বিভিন্ন ধরনের প্রকল্প কে জনসমক্ষে তুলে ধরার জন্য।মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ জানিয়েছেন যে আজ থেকে 19 বছর আগে এই মেলাকে কেন্দ্র করে অনেকেই বিদ্রুপ করতেন আজ সেই মালা অনেকটাই সার্থকতা লাভ করেছে এলাকায় একাধিক উন্নয়নমূলক কাজ হয়েছে এমন কোন গ্রাম নেই যেখানে কাঁচা রাস্তা আছে সব রাস্তায় ঢালাই রাস্তা হয়ে গেছে। হয়েছে কলেজ বিভিন্ন বিদ্যালয়ের পরিকাঠামো উন্নয়ন কিষাণ মান্ডি থেকে শুরু করে একাধিক উন্নয়ন হয়েছে আমাদের এই এলাকায় তিনি মেলায় বক্তব্য রাখতে গিয়ে এই কথাগুলো জানিয়ে দেন জনসমক্ষে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.